প্রয়াত ডেভিড ওনলি

প্রয়াত ডেভিড ওনলি
অন্টারিওর ২৮তম লেফটেন্যান্ট গভর্নর ডেভিড ওনলি

অন্টারিওর ২৮তম লেফটেন্যান্ট গভর্নর ডেভিড ওনলি মারা গেছেন। এ সময় তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। দায়িত্ব থাকাকালে ও তার পরবর্তী সময়েও ডিজঅ্যাবিলিটি অধিকার নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ করেছেন তিনি।

লেফটেন্যান্ট এলিজাবেথ ডডসওয়েলের কাছ থেকে শনিবার তার মৃত্যুর বিষয়টি জানা যায়। তবে মৃত্যুর সময় ও কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত জানাননি তিনি। শুধু বলেন, তিনি স্ত্রী রুথ অ্যান এবং তিন সন্তানকে রেখে গেছেন।

তার পূর্বসূরীকে ভালো বন্ধু ও সহকর্মী উল্লেখ করে ডডসওয়েল বলেন, শারীরিক প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও প্রদেশের প্রথম লেফটেন্যান্ট গভর্নর হচ্ছেন ওনলি। এ নিয়ে সচেতনতা তৈরি এবং প্রতিবন্ধীদের যেসব প্রতিবন্ধকতা মোকাবিলা করতে হয় সেগুলো ভেঙে ফেলতে ভূমিকা পালন করেন।

ডডসওয়েল বলেন, ওনলি যখন কক্ষে প্রবেশ করতেন সেখানে উপস্থিত ব্যক্তিরা দেখতেন তিনি কীভাবে শারীরিক প্রতিবন্ধকতা উৎরে যেতেন। তারা এমন একজন মানুষকে দেখতেন যাকে তারা পছন্দ ও সম্মান করতেন।

ওনলি ২০০৭ সালে অন্টারিওর লেফটেন্যান্ট গর্ভনর হিসেবে নিয়োগ পান এবং সাত বছর এই দায়িত্ব পালন করেন। ডডসওয়েল বলেন, আদিবাসীদের বিদ্যমান স্বাক্ষরতা ও শিক্ষা কর্মসূচি সম্প্রসারণে কাজ করেছেন তিনি। সম্প্রীতির উদ্যোগের গুরুত্বের ওপরও জোরারোপ করেন। তবে তিনি সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছিলেন সবার সবকিছুতে অংশগ্রহণের ওপর।

শৈশবে পোলিওতে আক্রান্ত হওয়ার পর ওনলি সারাজীবন মটরচালিত একটি স্কুটার ব্যবহার করেছেন।

ওনলির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হচ্ছে ২০১৯ সালে করা অন্টারিওর অ্যাকসেসিবিলিটি আইনের স্বাধীন পর্যালোচনা। কানাডায় উত্থাপিত এটাই এ ধরনের প্রথম প্রস্তাব।

ওনলির সময় অন্টারিওর প্রিমিয়ারের দায়িত্ব পালন করেন ক্যাথলিন উইন। তানর মৃত্যুতে সমবেদনা জানিয়ে এক টুইটে তিনি বলেছেন, আমরা ডেভিড ওনলিকে হারিয়েছি, এই শোক ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। তিনি ছিলেন একজন ভদ্র, বুদ্ধিমান ও হৃদয়বান মানুষ। তার পরিবার ও বন্ধুদের প্রতি ভালোবাসা রইলো।

- Advertisement -

Read More

Recent